বন্দর উপজেলার জনগণকে বঞ্চিত করার হীনউদ্দেশ্যে পুলিশ জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করেছে

বন্দর উপজেলার জনগণকে বঞ্চিত করার হীনউদ্দেশ্যে পুলিশ জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করেছে

অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ
বন্দর উপজেলার জনগণকে বঞ্চিত করার হীনউদ্দেশ্যে পুলিশ জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াকে গ্রেফতার করেছে
নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াকে আজ ১৬ মে সকাল ১০ টায় পুলিশের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করার ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর সহকারী সেক্রেটারী জেনারেল ও সাবেক এমপি জনাব হামিদুর রহমান আজাদ আজ ১৬ মে প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া একজন নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান। তার সেবা থেকে বন্দর উপজেলার জনগণকে বঞ্চিত করার হীনউদ্দেশ্যে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেছে। তিনি সম্পূর্ণ নির্দোষ।

সরকার জামায়াতে ইসলামীকে নেতৃত্ব শূন্য করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসাবেই দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে জামায়াতে ইসলামীর জনপ্রিয় নেতা-কর্মীকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে কষ্ট দিচ্ছে এবং হয়রানী করছে। জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়া একজন জনপ্রিয় নেতা। তার জন প্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়েই তাকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করা হয়েছে।

দেশের জনগণের উপরে জুলুম নির্যাতন করার কারনে বর্তমান সরকারের জনপ্রিয়তা শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। শক্তির জোড়ে ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্যই সরকার জনগণের ওপর জুুলুম-নির্যাতন চালাচ্ছে। সরকারের জুলুম থেকে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও আজ রেহাই পাচ্ছেন না। সরকারের এই জুলুম নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য আমি দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

বন্দর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান জনাব সাইফুল ইসলাম ভূঁইয়াসহ সারা দেশে জামায়াতের গ্রেপ্তারকৃত নেতা-কর্মীদের অবিলম্বে মুক্তি প্রদান করার জন্য আমি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানাচ্ছি।”

Leave a response